‘বর্ন ফর শুটিং’ স্লোগান নিয়ে দেশের স্মার্টফোন বাজার মাত করতে এলো ওয়ালটন প্রিমো জেডএক্স।শুক্রবার থেকেই ক্রেতারা হাতে পাচ্ছেন এই সেট।ওয়ালটন প্লাজা ও ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর ছাড়াও রাজধানীর পান্থপথে অবস্থিত বসুন্ধরা শপিং সেন্টারে হ্যান্ডসেটটি পাওয়া যাচ্ছে বলে ওয়ালটনের এক কর্মকর্তা জানান।

বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রসেসর সংবলিত সর্বোচ্চ ধারণক্ষমতার হ্যান্ডসেট এটি। ইতোমধ্যে বাজারে বেশ সাড়া ফেলেছে জেডএক্স।

ওয়ালটন সেলুলার ফোনের গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ জানিয়েছে, যারা হ্যান্ডসেট ব্যবহার করবেন তাদের আলাদা করে ক্যামেরা ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। এজন্যই জেডএক্সকে বলা হচ্ছে ‘বর্ন ফর শুটিং’। অর্থাৎ, ছবি তোলা বা ভিডিও করার জন্যই এর জন্ম। 

১৬ মেগাপিক্সেল অটোফোকাস ব্যাক ক্যামেরায় পাওয়া যাবে নিখুঁত প্রফেশনাল ছবি। ওয়ালটন জেডএক্সে আছে সর্বাধুনিক মানের ৮ মেগাপিক্সেল অটো ফোকাস ফ্রন্ট ক্যামেরা।

সেটটির ক্যামেরায় রয়েছে লারগান এম-৮ লেন্স। ৮ স্তরের এই লেন্সগুলোর সামনে স্যাফায়ার গ্লাসও থাকছে। এর কাস্টমাইজড ফ্লাশ লাইট অন্যান্য এলইডির চেয়ে শতকরা ৬০ ভাগ বেশি উজ্জ্বল আলো দেবে। এর ফলে কম আলো বা অন্ধকারেও গ্রাহকরা ছবি তুলতে পারবেন। 

এছাড়া মোবাইল ফোনসেট জগতের সবচেয়ে বড় (ওয়ান বাই ২.৩ ইঞ্চি) বিএসইআই সেন্সর থাকায় এলইডি ফ্লাশ ছাড়াও নয়েসলেস ছবি নেওয়া যায়।

আধুনিক সিএনসি (কম্পিউটার নিউমেরিক্যালি কন্ট্রোল) পদ্ধতিতে তৈরি প্রিমো জেডএক্স সেটের রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি ফুল এইচডি ডিসপ্লে। স্ক্রিন প্রটেক্টর হিসেবে গরিলা গ্লাস-৩ ডিসপ্লে প্যানেলকে দেবে অধিকতর সুরক্ষা। ২.২ মিলিমিটারের সরু ফ্রেম বর্ডারের কারণে সেটটিকে আকর্ষণীয় করেছে।

সিঙ্গেল মাইক্রোসিম চেম্বারের এই ফোনে আছে উচ্চ গতির ইন্টারনেট সেবা। প্রথম বারের মতো নয়েজ ক্যানসেলেশনের জন্য তিনটি বিশেষ মাইক্রোফোন রয়েছে এতে। কথা বলার সময় নয়েস হবে না। ভিডিও রেকর্ডিং এ পাওয়া যাবে নিখুঁত শব্দ। আছে উন্নত মানের ইয়ারফোনও।

এছাড়া স্মার্টফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৪.২.২ সুবিধা, আছে প্রসেসিং ইউনিট ক্রেইট৪০০, ২.২ গিগাহার্টজ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮০০ প্রসেসর, সর্বোচ্চ ধারণ ক্ষমতার ৩ জিবি ৠাম, ৩২ গিগাবাইটের বিশাল রম।

প্রয়োজনীয় তথ্য, ছবি, মিউজিক, অডিও, ভিডিও, অ্যাপস ইনস্টল এবং স্টোরের জন্যও রয়েছে পর্যাপ্ত জায়গা। 

উচ্চ মানের গ্রাফিক্স প্রসেসিংয়ের জন্য থাকছে অ্যাডরিনো ৩৩০ জিপিইউ। ওপেন জিএলইএস ৩.০ লাইব্রেরি থাকায় সর্বোচ্চ মানের ভিডিও গেমস খেলা যাবে।

মাল্টিমিডিয়াতে ফোরকে ভিডিও প্লেব্যাকের সঙ্গে পাওয়া যাবে ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ডিং, এফএম রেডিও, মিউজিক প্লেয়ারসহ নানারকম সুবিধা।

কানেকটিভিটিতে নতুন যোগ হয়েছে নেয়ার ফিল্ড কমিউনিকেশন-এনএফসি। এতে ফাইল ট্রান্সফার হবে দ্রুত। আরো আছে ডুয়েল ব্যান্ড ওয়াইফাই (২.৪ এবং ৫ গিগাহার্টজ), ইউএসবি ওটিজি এবং ব্লুটুথসহ সব ধরনের কানেকটিভিটি সুবিধা। জেডএক্সে ১০টিরও বেশি সেন্সর আছে। প্রিমো সিরিজে প্রথমবারের মতো যুক্ত হয়েছে প্রেসার সেন্সর।

এতসব অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে প্রিমো জেডএক্স ব্যবহারকারীকে সহায়তা করবে ২৭৫০ মিলি অ্যাম্পিয়ার লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।

হ্যান্ডসেটটির দাম ধরা হয়েছে ৩০ হাজার ৯৯০ টাকা।
How can we help you?

Copyright© 2017 and all rights reserved by - All Sister Concerns of WALTON Group